ফুলতলার আ.লীগ নেতা লিটুসহ গুলিবিদ্ধ ৩

এখন সময়: রবিবার, ১৯ মে , ২০২৪, ০২:৩৫:৪৫ এম

 

ফুলতলা (খুলনা) প্রতিনিধি: ঈদের পরের দিন রাতে অজ্ঞাত দৃর্বৃত্তদের গুলিতে ফুলতলা উপজেলার আওয়ামী লীগের ৩ নেতা-কর্মী গুরুতর আহত হয়েছেন। অভনগরের রাজঘাট বাসস্ট্যান্ডে গুলিবিদ্ধ হন তারা। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে পিস্তলের ৫ রাউন্ড তাজা গুলি ও দুটি গুলির খোসা উদ্ধার করেছে। তবে গত চার দিনেও কেউ আটক হয়নি।

গুলিবিদ্ধরা হলেন, ফুলতলা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোল্যা হেদায়েত হোসেন লিটু (৫৩), দামোদর ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক খায়রুজ্জামান ভূঁইয়া সবুজ (৩৫) ও যুবলীগ কর্মী নাসিম মোল্যা (৩২)। তারা খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ।

পুলিশ ও পারিবারিক সূত্র জানায়, ঈদের পরদিন শুক্রবার রাত ৮ টার দিকে ফুলতলা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ফুলতলার তাঁজপুর গ্রামের মৃত- আব্দুস সামাদ মোল্যার পুত্র মোল্যা হেদায়েত হোসেন লিটু দামোদর, ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক  ও দামোদর গ্রামের কামরুজ্জামান ভূঁইয়া নান্নুর পুত্র খায়রুজ্জামান ভূঁইয়া সবুজ,  যুবলীগ কর্মী ও দামোদর গ্রামের আব্দুস কুদ্দুস মোল্যার পুত্র নাসিম মোল্যা ও একই গ্রামের জাহাঙ্গীর ভূঁইয়ার পুত্র জাহিদুল ইসলাম ভূঁইয়া অভয়নগরের রাজঘাট বাসস্ট্যান্ডে মোস্তাকের চায়ের দোকানে বসে আড্ডা দিচ্ছিলেন।  রাত ৮টা ২০ মিনিটের দিকে অজ্ঞাত পরিচয় ২ যুবক তাদের লক্ষ্য করে গুলিবর্ষণ করতে থাকে। এ সময় তারা গুলিবিদ্ধ হন। এলাকাবাসী উদ্ধার করে মোল্যা হেদায়েত হোসেনকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এবং সবুজ ও নাসিমকে ফুলতলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। ওই দুইজনকে পরে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

হাসপাতাল সূত্র জানায়,  লিটু বুকের ডান পাজরের নিচ দিয়ে গুলি ঢুকে সামনে দিয়ে বেরিয়ে গেছে। সবুজের পেটে, থুতনির নিচে ও চোয়ালে এবং নাসিমের বাম হাতের কব্জি ও বাম উরুতে গুলি লাগে। সবুজকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়।

অভয়নগর থানার অফিসার ইনচার্জ এস এম আতিকুল ইসলাম বলেন, অভয়নগর ও ফুলতলা থানার সীমান্তবর্তী রাজঘাট মোড়ে দুর্বৃত্তদের গুলিতে ৩ ব্যক্তি আহত হন। খবর পেয়ে তাৎক্ষণিকভাবে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। দুর্বৃত্তদের ধরতে অভিযান অব্যাহত রয়েছে। মামলা হলেই পরবর্তী পদক্ষেপ নেয়া হবে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছিল।