জিপিএ-৫ এ মেয়েরা এগিয়ে পাসের হারে ছেলেরা

পাসে দেশ সেরা যশোর শিক্ষা বোর্ড

এখন সময়: বুধবার, ১ ফেব্রুয়ারি , ২০২৩ ০৮:১২:৪২ am

মিরাজুল কবীর টিটো: এবারের এসএসসি পরীক্ষায় পাসের হারে দেশ সেরা সাফল্য অর্জন করেছে যশোর শিক্ষা বোর্ড। পাশাপাশি জিপিএ-৫ প্রাপ্তির সংখ্যাও বেড়ে হয়েছে প্রায় দ্বিগুণ। যশোর বোর্ড থেকে এবার ১ লাখ ৬১ হাজার ৩১৪ পরীক্ষার্থী পাস করেছে। বোর্ডটিতে পাসের হার ৯৫ দশমিক ১৭। আর এই পাসের হার দেশের সব শিক্ষা বোর্ডের মধ্যে সর্বোচ্চ।

এদিকে, এসএসসির ফলাফলে এবার যশোর শিক্ষা বোর্ডে জিপিএ-৫ প্রাপ্তিতে ছেলেদের তুলনায় মেয়েরা এগিয়ে রয়েছে। তবে পাশের সংখ্যার দিক থেকে এগিয়ে আছে ছেলেরা। সোমবার প্রকাশিত বোর্ডের পরীক্ষার ফলাফল বিশ্লেষণ করে এ তথ্য জানা গেছে। এছাড়া গত তিন বছরের তুলনায় এবছর পাসের হার বেশি বলে জানিয়েছেন, যশোর বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক প্রফেসর মাধব চন্দ্র রুদ্র।

বোর্ডের সরবরাহ করা পরীক্ষার ফলাফল শিটে উল্লেখ করা হয়েছে, এবছর ১ লাখ ৭২ হাজার ৮৩ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে পরীক্ষায় অংশ নেয় ১ লাখ ৬৯ হাজার ৫০১ জন। পরীক্ষায় পাস করেছে ১ লাখ ৬১ হাজার ৩১৪ জন পরীক্ষার্থী। এক্ষেত্রে পাসের হার ৯৫ দশমিক ১৭। এরমধ্যে ছেলেরা পাস করেছে ৮০ হাজার ৮৫৮ জন ও মেয়ে ৮০ হাজার ৪৫৬ জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩০ হাজার ৮৯২ জন। গতবার জিপিএ-৫ প্রাপ্তির এই সংখ্যা ছিলো ১৬ হাজার ৪৬১। পরীক্ষায় উর্ত্তীণদের মধ্যে ছেলেদের তুলনায় ৩ হাজার ৬৫৮ জন মেয়ে বেশি জিপিএ-৫ পেয়েছে। যশোর বোর্ড থেকে মেয়েদের মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ১৭ হাজার ২৭৫ জন। উর্ত্তীণ ছেলেদের মধ্যে ১৩ হাজার ৬১৭ জন ছেলে জিপিএ-৫ পেয়েছে। এছাড়া ৪ থেকে ৫ গ্রেড পেয়েছে ৫৪ হাজার ৭৫০ জন, ৩ দশমিক ৪ গ্রেড পেয়েছে ৩২ হাজার ৫৯০ জন, ৩ থেকে ৩ দশমিক ৫ গ্রেড পেয়েছে ২৫ হাজার ১৩০ জন, ২ থেকে ৩ গ্রেড পেয়েছে ১৭ হাজার ১৫৭ জন, ১ থেকে ২ গ্রেড পেয়েছে ৭৯৫ জন পরীক্ষার্থী।

এরমধ্যে বিজ্ঞান বিভাগে পাশ করেছে ৩৭ হাজার ৭৬৮ জন পরীক্ষার্থী। জিপিএ-৫ পেয়েছে ২৩ হাজার ৭০১ জন, ৪ থেকে ৫ গ্রেড পেয়েছে ১২ হাজার ২৮৭ জন । এরমধ্যে ১১ হাজার ৯২৪ জন মেয়ে ও ১১ হাজার ৭৭৭ জন ছেলে। ৩ দশমিক ৫৪ গ্রেড থেকে ৪ গ্রেড পেয়েছে  হাজার ৩১৮ জন, ৩ থেকে ৩ দশমিক ৫ গ্রেড পেয়েছে ৩৬১ জন ও ২ থেকে ৩ গ্রেড পেয়েছে ১০১ জন।

মানবিক শাখায় পাশ করেছে ১ লাখ ১ হাজার ৭১২ জন পরীক্ষার্থী। এরমধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪ হাজার ৫৬৫ জন। এদের মধ্যে মেয়ে ৩ হাজার ৭০৩ জন ও ছেলে ৮৬২ জন। ৪ থেকে ৫ গ্রেড পেয়েছে ৩১ হাজার ৪৩২ জন, ৩ দশমিক ৫ থেকে ৪ গ্রেড পেয়েছে ২৬ হাজার ৫৭২ জন, ২ থেকে ৩ গ্রেড পেয়েছে ১৫ হাজার ৯৮২ জন, ১ থেকে ২ গ্রেড পেয়েছে ৭৫৩ জন পরীক্ষার্থী।

ব্যবসায় শিক্ষা শাখায় (বাণিজ্য) পাস করেছে ২১ হাজার ৮৩৪ জন। এরমধ্যে জিপিএ -৫ পেয়েছে ২ হাজার ৬২৬ জন। মেয়েদের মধ্যে ১ হাজার ৬৪৮ জন ও ছেলে ৯৭৮ জন জিপিএ-৫ পেয়েছে। ৪ থেকে ৫ গ্রেড পেয়েছে ১১ হাজার ৩১ জন, ৩ দশমিক ৫ থেকে ৪ গ্রেড পেয়েছে ৪ হাজার ৭শ, ৩ থেকে ৩ দশমিক ৫ গ্রেড পেয়েছে  ২ হাজার ৩৬১ জন, ২ থেকে ৩ গ্রেড পেয়েছে ১ হাজার ৭৪ জন, ১ থেকে ২ গ্রেড পেয়েছে ৪২ জন পরীক্ষার্থী।

এ ব্যাপারে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক প্রফেসর মাধব চন্দ্র রুদ্র জানান, যশোর শিক্ষা বোর্ডে ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের ‘বোর্ডের অনলাইন প্রশ্ন ব্যাংকের’ প্রশ্নে পরীক্ষা নেয়া হয়। এজন্য তাদের মূল বই পড়ে পরীক্ষা দিতে হয়। বন্যার কারণে পরীক্ষা পিছিয়ে গেলেও শর্ট সিলেবাসে উত্তর দেয়ার সুযোগ বেশি ছিল। যার জন্য পরীক্ষার্থীরা ভাল ফলাফল করেছে।