বাঘারপাড়া প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি লক্ষণ চন্দ্রের পরলোকগমন

এখন সময়: বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন , ২০২৪, ০৬:৫৪:০২ এম

বাঘারপাড়া পৌর প্রতিনিধি : বাঘারপাড়া প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি লক্ষণ চন্দ্র মন্ডল (৬৪) মারা গেছেন। সোমবার রাতে তিনি ঢাকার সাভারে ছেলের ভাড়া বাসায় পরলোকগমন করেন। মঙ্গলবার দুপুরে বাঘারপাড়া উপজেলার খানপুর মহাশ্মশানে তার অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া সম্পন্ন হয়। তিনি এক ছেলে ও এক মেয়েসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।
কয়েকদিন আগে তিনি ঢাকার সাভারে ছেলের বাসায় বেড়াতে যান। সেখানে সোমবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন। এর কিছুক্ষণ পর মারা যান। দীর্ঘদিন ধরে তিনি শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন।
মঙ্গলবার সকালে ঢাকা থেকে মরদেহ গ্রামের বাড়ি খানপুরে নিয়ে আসলে শালিখা ও বাঘারপাড়ায় তার দীর্ঘদিনের সহকর্মীরা শেষবারের মতো তাকে দেখতে আসেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বাঘারপাড়া প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি মিজানুর রহমান, বর্তমান সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির, সাবেক সাধারণ সম্পাদক চন্দন দাস, ফরিদুজ্জামান, সাবেক কোষাধ্যক্ষ তরুণ মন্ডল, বর্তমান দপ্তর সম্পাদক রাকিব হোসেন, সাংবাদিক নাজমুস সাকিব আকাশ ও সাঈদ ইবনে হানিফ।
সাংবাদিক লক্ষণ চন্দ্র মন্ডলের মৃত্যুতে গভীর শোক ও সমবেদনা জানিয়েছেন প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি বদরুদ্দিন বাবুল, সাধারণ সম্পাদক আবু বক্কার সিদ্দিকী , বর্তমান সভাপতি ইকবাল কবির ও সহসভাপতি আজিজুল ইসলাম।
১৯৬০ সালের ১৮ মে বাঘারপাড়া উপজেলার খানপুর গ্রামে লক্ষণ চন্দ্র মন্ডল জন্মগ্রহণ করেন। বাবা অভিলাষ মন্ডলের দুই ছেলের মধ্য বড় তিনি। ১৯৭৬ নারিকেলবাড়িয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে এসএসসি, যশোর সরকারি এমএম কলেজ থেকে এইচএসসি ও যশোর সরকারি সিটি কলেজ থেকে রাষ্ট্রবিজ্ঞানে স্নাতক সম্পন্ন করেন।
১৯৮১ সালে কলেজে পড়াকালীন লক্ষণ মন্ডল ঢাকার নয়াবার্তা, যশোরের সামাচার সমীক্ষা ও সাপ্তাহিত বহ্নি পত্রিকায় সাংবাদিকতা শুরু করেন। এরপর দৈনিক বাংলার বাণী, দৈনিক লাল-সবুজ, যশোরের দৈনিক স্ফুলিঙ্গ, পাক্ষিক যশোর ও দৈনিক লোকসমাজে লেখালেখি করেন। সর্বশেষ ঢাকা থেকে প্রকাশিত দৈনিক সংবাদ এর বাঘারপাড়া প্রতিনিধি হিসেবে কর্মরত ছিলেন।
সাংবাদিকতার পাশাপাশি বাঘারপাড়ার অন্যতম কৃষক সংগঠক হিসেবে পরিচিত তিনি। উপজেলার গাইদঘাট কৃষি প্রযুক্তি বাস্তবায়ন কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাকালীন সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। যশোরাঞ্চলে বিষমুক্ত সবজি উৎপাদন, কৃষি ও কৃষকের উন্নয়নই ছিলো ওই কেন্দ্রের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য। এর মাধ্যমে ২০০১ সালে যশোর, ঝিনাইদহ ও মাগুরার কৃষকদের একত্রিত করে ৬৪টি কৃষি ক্লাব গড়ে তোলেন। ২০১০ সালে তৎকালীন কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী গাইদঘাট কৃষি প্রযুক্তি বাস্তবায়ন কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাকালীন সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক লক্ষণ চন্দ্র মন্ডলকে পুরস্কৃত করেন।