আশাশুনিতে ইউপি চেয়ারম্যান ডালিমের মারধরে হোটেল ম্যানেজার আহত

এখন সময়: মঙ্গলবার, ২১ মে , ২০২৪, ০৫:৫৯:৩০ এম

শাকিলা ইসলাম জুঁই, সাতক্ষীরা  : সাতক্ষীরার আশাশুনি উপজেলায় উত্তরা নামে একটি আবাসিক হোটেলের ম্যানেজারকে বেধড়ক মারধর করেছেন খাজরা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এসএম শাহনেওয়াজ ডালিম। সোমবার সন্ধ্যার আগে এ ঘটনা ঘটে। ডালিম উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী। তার এলোপাতাড়ি কিল-ঘুষি ও লাথিতে লুটিয়ে পড়েন ম্যানেজার সাজ্জাত হোসেন।

পরবর্তীতে ডালিমের সহযোগী খাইরুল, ইমরুলসহ আরো কয়েকজন সেখানে গিয়ে আবারো ওই ম্যানেজারকে মারধর করেন। একপর্যায়ে থানা থেকে ঘটনাস্থলে পুলিশ গেলে উত্তেজিত এলাকাবাসী ডালিমের ওপর চড়াও হয়। এতে পরিস্থিতি বেগতিক দেখে ডালিম সুযোগ বুঝে পালিয়ে যান। হোটেলের সিসি ক্যামেরায় মারধরের ঘটনার রেকর্ড রয়েছে। 

ভুক্তভোগী হোটেল ম্যানেজার সাজ্জাত হোসেন ও ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী হোটেল বয় আরিফুল ও মিজান জানান, ইফতারি ও নামাজের জন্য হোটেলের মেঝে পরিস্কার করে জায়নামাজ পেতে রাখা ছিল। চেয়ারম্যান ডালিম জুতা পায়ে ঘোরঘুরি করতে থাকেন। তখন জায়নামাজের পাশ দিয়ে যেতে অনুরোধ করলে তিনি গালি দিয়ে কিল, ঘুষি ও লাথি মারেন।

প্রতক্ষদর্শীরাা জানান, একপর্যায়ে হোটেলের নীচতলা সোনারগাঁ রেস্তোরাঁর সামনে থেকে ডালিমের ক্যাডার খাইরুল ও ইমদাদুলসহ কয়েকজন এসে আবারো মারধর করতে থাকে। একপর্যায়ে পুলিশ আসলে উত্তেজিত জনতা ডালিমের ওপর চড়াও হয়। পরে পরিস্থিতি বেগতিক দেখে ডালিম সটকে পড়েন। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এরপর আহত ম্যানেজার সাজ্জাতকে সাতক্ষীরা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

সোনারগাঁ রেস্তোরাঁ ও উত্তরা আবাসিক হোটেলের মালিক ইসরাই খাঁ জানান, ইউপি চেয়ারম্যান শাহনেওয়াজ ডালিম প্রায়ই তার হোটেলে খাওয়ার পর বিল পরিশোধ করেন না। তার কাছে এখনো বকেয়া টাকা পাওয়া যাবে। টাকা চাইলেই তিনি ক্ষমতার দাপট দেখান। ভিডিও ফুটেজ দেখলেই বোঝা যাবে ডালিম তার ম্যানেজারকে কীভাবে মারধর করেছেন।

এ ব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যান এসএম শাহনেওয়াজ ডালিম জানান, আমি ওজু করতে ওই হোটেলে যাই। ওপরে উঠতেই ম্যানেজার আমার উপর চড়াও হয়। তার পর যা হবার তাই হয়েছে। ম্যানেজার যদি আমাকে চিনতো; তা হলো এই ঘটনা ঘটতো না।