ই-পেপার ফটোগ্যালারি আর্কাইভ শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর , ২০২১ ● ২ আশ্বিন ১৪২৮

লুকিয়ে থেকেও রেহাই পেলেন না সাতক্ষীরা জেলা পরিষদ সদস্য দেলোয়ার

Published : Saturday 31-July-2021 23:10:27 pm
এখন সময়: শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর , ২০২১ ১৩:৩৪:১৬ pm

বিএম আলাউদ্দীন, আশাশুনি : আশাশুনি থানা পুলিশ বিশেষ অভিযান চালিয়ে ঢাকা থেকে সাতক্ষীরা জেলা পরিষদের সদস্য সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি দেলোয়ার হোসেনকে গ্রেফতার করেছে। তিনি জিআর ১৮৩/১৭ ও ৬২১/১৭ নং  মামলার সাজাপ্রাপ্ত ও ৭ মামলায় ওয়ারেন্ট ভুক্ত আসামি। শুক্রবার দিবাগত রাতে রাজবাড়ী থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। আশাশুনি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ গোলাম কবিরের নেতৃত্বে এসআই নাজিম উদ্দিন ও এসআই পূর্ণেন্দু গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বিশেষ অভিযান চালিয়ে রাজবাড়ী থেকে তাকে গ্রেফতার করেন। বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার কুল্যা ইউনিয়নের কচুয়া গ্রামের অধিবাসী দেলোয়ার হোসেন জেলা পরিষদের সদস্য হওয়ার পর চাপড়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ভবন নির্মাণ, কচুয়া জামে মসজিদ নতুন করে নির্মাণ, বাউশুলি-মাদরায় মহাশ্মশান নির্মাণসহ বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, মসজিদ, মন্দির ইত্যাদির উন্নয়নের জন্য জেলা পরিষদ থেকে অনুদান দেয়ার নাম করে কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছেন। এছাড়া চাকরি বাণিজ্য, ডলার ব্যবসা, হুন্ডি ব্যবসারমত জঘন্য অপরাধের সাথে জড়িত ছিলেন। বিএনপি’র শাসনামলে ইউনিয়ন বিএনপির নেতা আওয়ামী লীগের শাসনামলে উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক ছিলেন। উপজেলা আওয়ামী লীগের অনেকে তাকে হাইব্রিড আওয়ামী লীগার বলে অভিহিত করেছেন। তিনি দীর্ঘদিন এলাকাছাড়া ছিলেন এবং যতদূর জানাযায় বেনাপোল ও ভোমরা বন্দরে কিছু একটা করার মাধ্যমে কয়েক বছরের মধ্যে কোটি টাকার মালিক হন। এরপর এলাকায় এসে ইউপি চেয়ারম্যান নির্বাচন করে পরাজিত পরবর্তীতে জেলা পরিষদের সদস্য নির্বাচিত হন। এরপর জেলা পরিষদের অনুদান পাইয়ে দেয়াসহ নানা অপকর্মে জড়িত হয়ে বিতর্কিত হয়ে আবারও আত্মগোপনে চলে যান। অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ গোলাম কবির জানান, যেহেতু তিনি সাজাপ্রাপ্ত ওয়ারেন্টভুক্ত আসামি এ ধরনের আসামিদের খুঁজে বের করে ধরে আনার দায়িত্ব আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর। তাই আমি সেটা করেছি। বহুদিন ধরে তাকে ধরার চেষ্টা করেছিলাম অবশেষে শুক্রবার রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রাজবাড়ি জেলার একবাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। আসামিকে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।



আরও খবর