ই-পেপার ফটোগ্যালারি আর্কাইভ বুধবার, ২৭ অক্টোবর , ২০২১ ● ১২ কার্তিক ১৪২৮

পাশাপাশি কবরে শায়িত সড়ক দুঘর্টনায় নিহত পিতা-পুত্র

Published : Monday 09-August-2021 21:52:09 pm
এখন সময়: বুধবার, ২৭ অক্টোবর , ২০২১ ২২:৫৭:৫০ pm

এম আলমগীর, ঝিকরগাছা: স্বজনদের আহাজারি, বুকফাটা আর্তনাদ আর শোকাহত হাজারও মানুষের উপস্থিতিতে জানাজা নামাজ শেষে চিরন্দ্রিায় শায়িত হলো সড়ক দুঘর্টনায় নিহত পিতা জোহর আলী ও পুত্র আক্তারুজ্জামান। সোমবার সকাল ১১টায় তাদের নিজ গ্রাম যশোরের ঝিকরগাছার নিশ্চিন্তপুরে পারবারিক কবরস্থানে পিতা-পুত্রকে পাশাপাশি দাফন করা হয়।

রোববার বিকেল ৩টার দিকে ঝিকরগাছা-বাঁকড়া আবুল ইসলাম সড়কের বল্লা কলোনীপাড়া নামক স্থানে মোটরসাইকেল ও পিকআপের মুখোমুখি সংঘর্ষে পিতা জোহর আলী (৪৮) তার পুত্র আক্তারুজ্জামান(২২) মারা যান।

জোহর আলী ও তার ছেলে আক্তারুজ্জামান পালসার মোটরসাইকেল যোগে ঝিকরগাছায় যাচ্ছিলেন। ঝিকরগাছা-বাঁকড়া আবুল ইসলাম সড়কের বল্লা কলোনীপাড়া নামক স্থানে পৌঁছালে বাঁকড়াগামী একটি পিকআপ ভ্যান তাদের ধাক্কা দেয়। যার নং- ঢাকা মেট্রো-এনএ১৫-৮৩১০। এ সময় ড্রাইভার পিকআপ রেখে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন এসে মারাত্মক আহত পিতা-পুত্রকে ঝিকরগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠায়। সেখানে দায়িত্বরত চিকিৎসক পিতা জোহর আলীকে মৃত ঘোষণা করেন এবং পুত্র আক্তারুজ্জামানকে যশোর ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে পাঠানো হয়। চিকিৎসকদের সকল চেষ্টা ব্যর্থ করে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে আক্তারুজ্জামান মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন। ঘাতক পিকআপ পুলিশ হেফাজতে আছে।

সোমবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে একই এ্যাম্বুলেন্সে পিতা-পুত্রের লাশ বাড়িতে পৌঁছালে এক হৃদয় বিদারক দৃশ্যের অবতারণা হয়। স্বামী-সন্তান হারা আকলিমা বেগম এবং দুই মাস আগে বিবাহিত আক্তারুজ্জামানের স্ত্রী রিনা খাতুন এবং তাদের স্বজনদের বুকফাটা কান্নার চিৎকার আর গ্রামবাসীর শোকে এলাকার আকাশ বাতাস ভারী হয়ে ওঠে। রাতেই গ্রামের শতশত মানুষ তাদের বাড়িতে ভিড় জমায় এবং সকাল থেকে এলাকার হাজার হাজার মানুষ পিতা-পুত্রের লাশ এক পলক দেখার জন্য ছুটে আসে। আগত সকল মানুষের মধ্যে ছিল দীর্ঘশ্বাস আর শোকের ছায়া। বাড়িতে ঢুকেই স্বজনদের আহাজারি দেখে চোখের অশ্রু নিবারণ করতে পারেনি কেউ।

নিহত জোহর আলীর ভাই ফজর আলী ও রওশন আলী জানান, সাত বছর বিদেশ থেকে গত বছর বাড়ি ফিরেছে জোহর। সংসারে এনেছে সচ্ছলতা। সুন্দর বাড়ি করেছে, মাঠে ও ভিটেবাড়ির জমি কিনেছে। চাষের জন্য মাঠে অন্যের জমি বন্ধক রেখে চাষাবাদ করে। সকালে রওশন, জোহর ও আক্তারুজ্জামান এক সাথে কাজ করেছে। কাজ শেষে খুব তড়িঘড়ি করে ঝিকরগাছায় যাচ্ছিল তারা। ছেলে মোটরসাইকেল চালাচ্ছিল আর পিতা পেছনে বসেছিল।

তারা আরো জানায়, সংসারকে সুখময় করার জন্য অর্নাস পড়–য়া ছেলেকে বিয়ে দেয় গত জুন মাসে। আক্তারুজ্জামান যশোর ক্যান্টনমেন্ট কলেজে ইসলামের ইতিহাস বিষয় নিয়ে এবার অর্নাস ফাইনাল ইয়ার শেষ করেছে। পড়াশুনার পাশাপাশি পিতার কৃষি কাজে ব্যাপকভাবে সহযোগিতা করত। অত্যন্ত ভাল, হাস্যজ্জ্বল ও সদালাপী একটি ছেলে ছিল আক্তার।

জানাযায় সংক্ষিপ্ত স্মৃতিচারণ করেন, নির্বাসখোলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম, মুন্সী হুসাইন আহম্দে, নিশ্চিন্তপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও সাংবাদিক আলমগীর হোসেন, মাওলানা সাইফুল ইসলাম ফিরোজ, স্থানীয় মসজিদের ইমাম হাফেজ মাওলানা ই¯্রাফিল হোসেন। জানাজা পরিচালনা করেন, শহীদ মশিয়ূর রহমান কলেজের ইসলাম শিক্ষা বিভাগের প্রভাষক মাওলানা সাইফুল্লাহ আল-মামুন।



আরও খবর