ই-পেপার ফটোগ্যালারি আর্কাইভ বুধবার, ২৭ অক্টোবর , ২০২১ ● ১২ কার্তিক ১৪২৮

কপিলমুনি বাজারে আবাসন বন্ধের দাবিতে জেলা প্রশাসকের নিকট অভিযোগ

Published : Monday 28-June-2021 21:01:34 pm
এখন সময়: বুধবার, ২৭ অক্টোবর , ২০২১ ২২:২৪:০০ pm

জিএম আসলাম হোসেন, কপিলমুনি (খুলনা) : পাইকগাছা উপজেলার কপিলমুনি বাজারের প্রাণকেন্দ্রে আবাসন বন্ধের দাবি জানিয়ে জেলা প্রশাসক বরাবর লিখিত অভিযোগ করেছেন এলাকাবাসী । কপিলমুনিকে বাঁচাতে নির্মাণাধীন ঘর বন্ধের দাবি জানিয়েছেন।

অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, দক্ষিণ বঙ্গের প্রাচীনতম কপিলমুনি বাজারের সৌন্দর্য বর্ধনে নেই সুষ্ঠু পরিকল্পনা। প্রতিষ্ঠাতা দানবীর রায় সাহেব বিনোদ বিহারী সাধুর সুপরিকল্পনা আর সাধনায় এলাকার মানুষের কল্যাণে প্রতিষ্ঠা ও প্রসিদ্ধ লাভ করলেও মুলত তার যোগ্য উত্তরসূরির অভাবে রায় সাহেবের কোমল স্পর্শে প্রতিষ্ঠিত কপিলমুনি বাজারের পরিধি ও সুন্দর গঠনে তেমনটি আগ্রসর হতে পারেনি। রায় সাহেবের পরে যারা ইতোপূর্বে কপিলমুনি বাজারের নেতৃত্ব দিয়েছেন তারা কিছুটা ধারাবাহিকতা রক্ষা করলেও আজ সুষ্ঠু নের্তৃত্বের অভাব দেখা দিয়েছে। বাজারের সৌন্দর্য বর্ধনে মুল্যবান জমিগুলো ভূমি সংশ্লিষ্ট অফিসের এক শ্রেণির দালাল দ্বারা প্রভাবিত হয়ে নিমিষেই দখল হয়ে যাচ্ছে। ৫৮ লক্ষ টাকা বার্ষিক রাজস্ব আয়ের উৎস কপিলমুনি বাজারের শ্রীবৃদ্ধি ও উন্নয়নের দিকে না তাকিয়ে বরং বাজারের মুল্যবান সম্পত্তি অব্যবস্থাপনায় নিমজ্জিত হচ্ছে।  ইতোমধ্যে বাজারের কেন্দ্রবিন্দুতে মূল্যবান জমি আবাসনের ঘর বানিয়ে দেয়া হচ্ছে।  এলাকাবাসীর দাবি, বাজার অভ্যন্তরে এসব মুল্যবান জমিতে আবাসনের ঘর দেয়া কতটা যুক্তিসংগত। এদিকে মুল্যবান এ সব জমি পেতে মোটা অংকের টাকা নিয়ে ছুটছে অনেকেই। একদিকে ১ লক্ষ ৮৭ হাজার টাকার ঘর অন্যদিকে ২০ লক্ষ টাকার জমি পেতে মোটা অংকের টাকা নিয়ে মরিয়া  অনেকেই। এদিকে বাজার কেন্দ্রিক আবাসনের ঘর বরাদ্দ দেয়ায় ফুসে উঠেছে এলাকাবাসী।  গত শুক্রবার এলাকাবাসী বাজারে আবাসনের নির্মাণাধীন জায়গায় গিয়ে প্রতিবাদ জানিয়েছেন। তাদের দাবি রাজস্ব সমৃদ্ধ কপিলমুনি বাজারকে আধুনিকায়ন করতে এ সম্পত্তির প্রয়োজন অপরিহার্য। ফলে অবিলম্বে নির্মাণ কাজ বন্ধের দাবিতে গত ২৭ জুন জেলা প্রশাসক বরাবর লিখিত আবেদন করেছেন এলাকাবাসী।



সর্বশেষ সংবাদ
আরও খবর