ই-পেপার ফটোগ্যালারি আর্কাইভ রবিবার, ১৭ অক্টোবর , ২০২১ ● ২ কার্তিক ১৪২৮

আ্যাসাইমেন্টের নামে টাকা গ্রহণের অভিযোগ

Published : Friday 13-August-2021 23:14:04 pm
এখন সময়: রবিবার, ১৭ অক্টোবর , ২০২১ ১৯:০১:২৮ pm

লোহাগড়া (নড়াইল) প্রতিনিধি : নড়াইলের লোহাগড়ার লক্ষীপাশা আদর্শ মহিলা ডিগ্রি কলেজের ছাত্রীরা অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগে এনে লোহাগড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট লিখিত আবেদন করেছেন। শুক্রবার সকালে লক্ষীপাশা আদর্শ মহিলা ডিগ্রী কলেজের এইচএসসির (২০২১) ২৫/৩০ জন পরীক্ষার্থী একটি লিখিত অভিযোগ উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট জমা দেন।
লিখিত অভিযোগে জানা যায়, লক্ষীপাশা আদর্শ মহিলা ডিগ্রী কলেজের এইচএসসি(২০২১) পরীক্ষার্থীদের মাসিক বেতন ও ফরম ফিল-আপের জন্য ৪৮০০ টাকা এবং অ্যাসাইমেন্টের জন্য আমাদের কাছ থেকে ৩ বার ৭০০ টাকা  গ্রহন করেন। যা ভর্তি কালীন সময়ে কলেজ কর্তৃপক্ষ আমাদের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন মাসিক কোন বেতন দেয়া লাগবে না। আমাদের অধিকাংশ মা-বাবা গরীব। করোনা কালীন সময়ে আমাদের অভিভাবকদের এত টাকা দেয়া অসম্ভব হয়ে দাড়িয়েছে। এদিকে আমাদের অ্যাসাইমেন্ট কলেজে জমা দিতে গেলে কলেজের শিক্ষক বুলবুল মাহম্দে অ্যাসাইমেন্ট ছিড়ে ফেলেন। অভিযোগকারী সাদিয়াসহ ২/৩ জন কান্না বিজড়িত কন্ঠে বলেন, আমাদের পিতৃতুল্য অত্র কলেজের অধ্যক্ষ স্যার বলেন, টাকা না দিতে পারলে লেখাপড়ার দরকার নেই। স্যার কিভাবে এ কথা বললেন।
কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ ফারুক আহম্মেদের সাথে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি অভিযোগের ব্যাপারে বলেন, আপনারা আমার বিরুদ্ধে কেন ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছেন প্রয়োজনে আমার কথা গুলো রেকর্ড করেন এবং যা ইচ্ছে তাই লেখেন। আমার পরিচালনা পর্ষদ আছে এই বলে ক্ষুদ্ধ হয়ে ফোনটি কেটে দেন।
এ ঘটনায় লোহাগড়া মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আব্দুল হামিদ ভুইয়া বলেন. সরকারি বিধি মোতাবেক অ্যাসাইমেন্টের জন্য কোন টাকা প্রয়োজন হয় না এবং ফরম ফিল-আপের জন্য বোর্ড কর্তৃক নির্ধারিত টাকার বেশী নিতে পারবে না, যদি কোন প্রতিষ্ঠান নির্ধারিত টাকার বেশি নেয় তাহলে আইনের পরিপন্থি।
এব্যাপারে লোহাগড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোসাঃ রোসলিনা পারভিন বলেন, একটি মেয়ে ফোন করেছিল অভিযোগের ব্যাপারে। আমি না থাকার কারনে অভিযোগ গ্রহন করতে পারিনি। রোববার অভিযোগ জমা দিতে বলেছি।