ই-পেপার ফটোগ্যালারি আর্কাইভ শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর , ২০২১ ● ২ আশ্বিন ১৪২৮

যশোরে একদিনে সাড়ে ৫ হাজার টিকা গ্রহণের রেকর্ড

Published : Saturday 31-July-2021 22:57:33 pm
এখন সময়: শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর , ২০২১ ১২:৪৩:১৭ pm

# করোনায় ঝরে গেলো ৩ প্রাণ, শনাক্ত ১০৯
বিল্লাল হোসেন : যশোরে গত ১২ জুলাই গণটিকা কার্যক্রম শুরু হওয়ার পর থেকে ৩১ জুলাই (শনিবার) সবচেয়ে বেশি মানুষ করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন (টিকা) নিয়েছেন। এদিন সকাল সাড়ে ৮ টা থেকে দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত জেলায় টিকা গ্রহণ করেন  সাড়ে ৫ হাজার নারী পুরুষ। স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, যেভাবে মানুষ টিকা নিচ্ছেন তাতে প্রতিদিন রেকর্ড ভেঙে নতুন রেকর্ড সৃষ্টি হবে। এদিকে, এদিকে গত ২৪ ঘন্টায়  যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে করোনা ও উপসর্গে ৪ জন মারা গেছে। ৪৫১ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১০৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।
হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা. আরিফ আহমেদ জানান, মৃত ৪ জনের মধ্যে রেডজোনে করোনায় আক্রান্ত ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া ইয়োলোজোন উপসর্গ নিয়ে চিকিৎসাধীন ১ জন মারা যান। করোনায় মৃতরা হলেন যশোরের মণিরামপুর উপজেলার শেখ পাড়ার আকবার আলীর ছেলে আলমগীর হোসেন (৩৫), ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার তেতুলবাড়িয়া গ্রামের রশিদ শেখের গোলাম শেখ (৬০) ও মহেশপুর উপজেলার খালিশপুর এলাকার আব্দুল জলিলের ছেলে সাইদুল ইসলাম (৬০)। উপসর্গ নিয়ে মৃত ব্যক্তির নাম আব্দুল মান্নান (৬৫)। তিনি যশোর শহরতলী ঝুমঝুমপুর এলাকার সদর উদ্দিনের ছেলে।
সিভিল সার্জন অফিসের তথ্য কর্মকর্তা ডা. রেহেনেওয়াজ জানান, ৩১ জুলাই যশোর জেলায় সবচেয়ে বেশি মানুষ টিকা গ্রহণ করেছেন। এদিন সাড়ে ৫ হাজারের মধ্যে প্রথম ডোজ ৫ হাজার ২৮০ জন ও ২য় ডোজ নিয়েছেন ২২০ জন। এরআগে ২৯ জুলাই ৩ হাজার ২৪২ জন, ২৮ জুলাই ৪ হাজার ৫৫৮ জন, ২৭ জূলাই ৪ হাজার ৯৯২ জন, ২৬ জুলাই ৪ হাজার ৯৩৯ জন, ২৫ জুলাই ৪ হাজার ১৭১ জন ও ২৪ জুলাই ৩ হাজার ৩১৮ জন টিকা গ্রহণ করেছিলেন।  করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন (টিকা) গ্রহণে ব্যাপক সাড়া পাওয়া যাচ্ছে।
ডা. রেহেনেওয়াজ আরও জানান, যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) জেনোম সেন্টারে ৪৫১ টি নমুনা পরীক্ষায় ১০৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়। এর মধ্যে সদর উপজেলায় ৭৬ জন, কেশবপুর উপজেলায় ২ জন, ঝিকরগাছা উপজেলায়  ১ জন, অভয়নগর উপজেলায় ১৯ জন, মণিরামপুর উপজেলায় ২ জন, শার্শা উপজেলায় ১ জন ও চৌগাছা উপজেলায় ৮ জন রয়েছে।
যশোরের সিভিল সার্জন ডা. শেখ আবু শাহীন জানান, প্রতিদিন ভ্যাকসিন (টিকা) গ্রহণকারীদের সংখ্যা বাড়ছে। যেভাবে মানুষ টিকা নেয়ার জন্য নিবন্ধন করছেন তাতে করে  টিকায় গ্রহণে নতুন নতুন রেকর্ড তৈরি হতে পারে। আগের চেয়ে মানুষ এখন অনেক সচেতন। যে কারণে মানুষ টিকা কেন্দ্রে ছুটছেন। যত মানুষ টিকা গ্রহণ করবেন ততই করোনাভাইরাসের সংক্রমণ কমে আসবে।
সিভিল সার্জন আরও জানান, ৩১ জুলাই পর্যন্ত যশোর জেলায় ১৮ হাজার ৮১৬ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। সুস্থ হয়েছেন ১৩ হাজার ৯৭২ জন। যশোরের বিভিন্ন হাসপাতাল ও বাড়িতে মৃত্যু হয়েছে ৩৪৪ জনের। এছাড়া ঢাকায় ৬ জন খুলনায় ৭ জন ও সাতক্ষীরার হাসপাতালে মারা গেছেন ১ জন। বর্তমান আক্রান্তদের মধ্যে হাসপাতালে ১১৬ জন চিকিৎসাধীন। হোম আইসোলেশনে আছেন ৪ হাজার ৩৮৪ জন। করোনার সংক্রমণ প্রতিরোধে সকলকে সকলকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহবান জানিয়েছেন সিভিল সার্জন।



আরও খবর