ই-পেপার ফটোগ্যালারি আর্কাইভ শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর , ২০২১ ● ২ আশ্বিন ১৪২৮

যশোরে ২৫০ শয্যা হাসপাতালে করোনায় মৃত্যু ও রোগী কমেছে

Published : Friday 30-July-2021 22:47:55 pm
এখন সময়: শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর , ২০২১ ১৪:০০:৫৯ pm

# ৭ দিনে মারা গেছে ৪৪ ভর্তি ২৫৯
# ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু ৮ শনাক্ত ১৪২

বিল্লাল হোসেন : যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে করোনা ও উপসর্গের রোগীর চাপ কমেছে। সেই সাথে কমেছে মৃত্যুর সংখ্যা। জেলায় করোনা ও উপসর্গ নিয়ে আরও ৮ জন মারা গেছেন। বৃহস্পতিবার সকাল ৮ টা থেকে শুক্রবার সকাল ৮ টা পর্যন্ত  যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তারা মারা যান।  এই নিয়ে গত ৭ দিনে হাসপাতালে করোনা ও উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু হলো ৪৪ জনের।  রেডজোন ও  ইয়োলোজোন ২৬৯ জন রোগী ভর্তি হয়েছেন। এরমধ্যে করোনায় ১২৫ জন ও উপসর্গ নিয়ে ১৪৪ জন ভর্তি হয়েছিলেন।  এদিকে, যশোর জেলায় ৫২৪ জনের নমুনা পরীক্ষার ফলাফলে ১৪২ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।   
হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা. আরিফ আহমেদ জানান, গত ২৪ ঘন্টায় হাসপাতালের রেডজোনে করোনায় আক্রান্ত ৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া ইয়োলোজোন উপসর্গ নিয়ে চিকিৎসাধীন ১ জন মারা যান। এই সময়ের মধ্যে রেডজোনে ১৮ জন ও ইয়োলোজোনে ১৬ জন ভর্তি হন। শুক্রবার সকাল ৮ টা পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত ৯৫ জন ও উপসর্গ নিয়ে ২৮ রোগী চিকিৎসাধীন ছিলেন। এর আগে বৃহস্পতিবার করোনা ও উপসর্গে মারা যান ৩ জন, ভর্তি হন ৩৪ জন, বুধবার মারা যান ৭ জন, ভর্তি হন ৩৫ জন, মঙ্গলবার মারা যান ২ জন, ভর্তি হন ৩৪ জন, সোমবার মারা যান ১১ জন, ভর্তি হন ৩৬ জন, রোববার মারা গেছেন ৭ জন, ভর্তি ৪৪ জন এবং শনিবার মারা যান ৬ জন ও ভর্তি হন ৪১ জন। আরএমও ডা. আরিফ আহমেদ জানান,  পূর্বের তুলনায় বর্তমানে হাসপাতালে করোনা ও উপসর্গের রোগীর চাপ কম হয়েছে। সেই সাথে  কমেছে মৃত্যুর সংখ্যা।
সিভিল সার্জন অফিসের তথ্য কর্মকর্তা ডা. রেহেনেওয়াজ জানান, যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) জেনোম সেন্টারে ৩৫৫ টি নমুনা পরীক্ষায় ৯৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়। আর যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালসহ বিভিন্ন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ১৫৮ জনের র‌্যাপিড এন্টিজেন পরীক্ষায় ৪৩ জনের ফলাফল করোনা পজেটিভ আসে। এছাড়া জিন এক্সপার্ট মেশিনে ১১ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৪ জনের শরীরে করোনার জীবাণু মিলেছে। শনাক্ত ১৪২ জনের মধ্যে সদর উপজেলায় ১১৬ জন, কেশবপুর উপজেলায় ৪ জন, ঝিকরগাছা উপজেলায় ২ জন, অভয়নগর উপজেলায় ১৩ জন, শার্শা উপজেলায় ১ জন ও চৌগাছা উপজেলায় ৬ জন রয়েছে।
যশোরের সিভিল সার্জন ডা. শেখ আবু শাহীন জানান, ৩০ জুলাই পর্যন্ত যশোর জেলায় ১৮ হাজার ৬৭৫ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। সুস্থ হয়েছেন ১৩ হাজার ৮৬২ জন। যশোরের বিভিন্ন হাসপাতাল ও বাড়িতে মৃত্যু হয়েছে ৩৪১ জনের। এছাড়া ঢাকায় ৬ জন খুলনায় ৭ জন ও সাতক্ষীরার হাসপাতালে মারা গেছেন ১ জন। বর্তমান আক্রান্তদের মধ্যে হাসপাতালে ১১২ জন চিকিৎসাধীন। হোম আইসোলেশনে ৪ হাজার ৩৬০ জন।
যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. আখতারুজ্জামান জানান, চলতি মাসের প্রথম দিক থেকে হাসপাতালে করোনায় আক্রান্ত ও  উপসর্গের রোগীর চাপ শুরু হয়। রোগীর চাপ মোকাবেলায় বাড়তি  ওয়ার্ড ও শয্যা চালু করা হয়। তবে ৭ দিনের পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, রোগী অনেকটা কমে গেছে। মৃত্যুও কমেছে।



আরও খবর