ই-পেপার ফটোগ্যালারি আর্কাইভ বুধবার, ২৭ অক্টোবর , ২০২১ ● ১২ কার্তিক ১৪২৮

শালিখায় স্বপ্নের ঠিকানা পেলো ১৩০ গৃহহীন পরিবার

Published : Monday 02-August-2021 21:45:26 pm
এখন সময়: বুধবার, ২৭ অক্টোবর , ২০২১ ১৯:৪৩:৫৩ pm

শালিখা মাগুরা প্রতিনিধি: মুজিববর্ষ উপলক্ষে মাগুরার শালিখা উপজেলার ভূমিহীন ও গৃহহীন মানুষের জন্য প্রায় ২৪ কোটি টাকা ব্যয়ে আশ্রয়ণ প্রকল্পের ১৩০টি সেমিপাকা ঘর নির্মাণ করা হয়েছে। এসব নির্মিত ঘরে সুফলভোগীরা বসবাস শুরু করেছেন। এতে গৃহহীন পরিবারগুলোর মুখে হাসি ফুটেছে। উপজেলার বিভিন্ন  এলাকায় মনোরম পরিবেশে এসব ঘর নির্মাণ করা হয়েছে। ঘরে বসবাসরত সুফলভোগী অনেকেই ভিক্ষা করে চলতেন। অন্যের রান্না ঘরে কিংবা বারান্দায় অনেকেই রাত কাটাতেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহারে আশ্রয়ণ প্রকল্পে ঘর পেয়ে  অসহায় এসব পরিবারের স্বপ্নপূরণ হয়েছে।  সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, গত অর্থবছরে প্রথম ও দ্বিতীয় পর্যায়ে শালিখা উপজেলার ৭টি ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে সরকারি খাস জমিতে ২৩ কোটি ৭৫ লাখ  টাকা ব্যয়ে এ আশ্রয়ণ প্রকল্পের ১৩০টি ঘর নির্মাণ কাজ শেষ হয়। এ উপজেলার বৃহত্তর এ আশ্রয়ণ প্রকল্পটি রয়েছে প্রথম পর্যায়ে উপজেলার তালখড়ি উজগ্রামে ৫০টি ও ২য় পর্যায়ে উপজেলার কাতলী ১৫টি ,গোপালগ্রাম ৫টি,পুড়াগাছি ৬টি, গুটোরপুকুর ৬টি,শুনাকুড় ১৮টি, শতপাড়া,৯টি, উজগ্রাম ৭টি,কৃষ্ণপুর ৮টি।  এছাড়াও ২য় পর্যায়ে মোট ৮০টি সেমিপাকা ঘর  নির্মাণ করা হয়েছে। সরকারি বিধিমতে, এ আশ্রয়ণ প্রকল্প বাস্তবায়নে ৫ সদস্যবিশিষ্ট কমিটি কাজ করেছেন। তারা হলেন এ কমিটির সভাপতি উপজেলা নির্বাহী অফিসার, সদস্য সচিব উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা, সদস্য উপজেলা এসিল্যান্ড, উপজেলা প্রকৌশলী ও সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যান। শতখালী ইউনিয়নের কাতলী আশ্রয়ণ প্রকল্পে গতকাল সকালে সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, প্রকল্প এলাকায় উপজেলার বিভিন্ন তহবিল হতে  নলকূপ, সোলার লাইট এবং সোলার পানির পাম্প বসানো হয়েছে। রাস্তা ঘাটের  উন্নয়ন করা হয়েছে। এ আশ্রয়ণ প্রকল্পে বসবাসকারী  হাজেরা বেগম,শারমিন খাতুন,জামেলা বেগম, রিনা খাতুন, রফিক কাজী, বারিক কাজী,রোজিনা খাতুন, তহমিনা খাতুন,পারভীন আক্তার, শের আলী, সাহেব আলী, স্বরভানু বেগম ও হারুনসহ আরও অনেকেই বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাদের মায়ের মতো। তাঁ জন্যই আজ আমরা এই মাথা গোঁজার ঠাঁই পেয়েছি। আমরা সকলেই তার দীর্ঘায়ু কামনা করছি।

এ প্রকল্পের সভাপতি উপজেলা নির্বাহী অফিসার গোলাম মোঃ বাতেন বলেন, জেলা প্রশাসক ড. আশরাফুল আলম স্যারের  দিকনির্দেশনায়  প্রকল্পের প্রথম ও ২য় পর্যায়ের কাজ সমাপ্ত করা হয়েছে।

 প্রকল্পের সদস্য সচিব উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ রাজিবুল ইসলাম  বলেন, প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির সহযোগীতায় অক্লান্ত পরিশ্রম করে এ প্রকল্প সমাপ্তি করা হয়েছে। এরই মধ্যে  সুফলভোগীরা ঘরে বসবাসও শুরু করেছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আশ্রয়ণ প্রকল্পে সারাদেশে যত মানুষকে ঘর দিয়েছেন তা পৃথিবীর ইতিহাসে বিরল। গৃহহীনরা এখন সেই স্বপ্নের ঘরে বসবাস করছে।



আরও খবর