ই-পেপার ফটোগ্যালারি আর্কাইভ সোমবার, ২৫ অক্টোবর , ২০২১ ● ৯ কার্তিক ১৪২৮

যশোরে একদিনে টিকা নিলেন ৭৩৪২ জন : আরও ২ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৬৭

Published : Saturday 14-August-2021 21:11:38 pm
এখন সময়: সোমবার, ২৫ অক্টোবর , ২০২১ ০৩:৪৯:১৩ am

বিল্লাল হোসেন : যশোরে করোনাভাইরাসের টিকা গ্রহণকারীর সংখ্যা প্রতিদিন বাড়ছে। টিকা নেয়ার জন্য ঘন্টার পর ঘন্টা লাইনে অপক্ষো করছেন হাজার হাজার নারী পুরুষ। করোনাভাইরাস নিয়ে সচেতনতার কারণেই টিকা গ্রহণে আগ্রহ মানুষের বেড়েছে। করোনার সংক্রমণ প্রতিরোধে শনিবার জেলায় ৭ হাজার ৩৪২ জন টিকা নিয়েছেন। এদিকে, গত ২৪ ঘন্টায় যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে করোনায় আক্রান্তে ২ জন মারা গেছে। এছাড়া ২১৯ নমুনা পরীক্ষায় ৬৭ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা. আরিফ আহমেদ জানান, শুক্রবার সকাল ৮ টা থেকে শনিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত হাসপাতালের করোনা রেডজোনে ২ জন মারা গেছে। উপসর্গ নিয়ে ইয়োলোজোনে কারো মৃত্যু হয়নি। করোনায় মৃত ২ জন হলেন যশোর সদর উপজেলার নরেন্দ্রপুর গ্রামের রহিম বিশ্বাসের স্ত্রী মনোয়ারা বেগম (৬৫), বাঘারপাড়া উপজেলার পারকুল গ্রামের জামান সরকারের ছেলে আইয়ূব আলী (৬২)।

সিভিল সার্জন অফিসের তথ্য কর্মকর্তা মেডিকেল অফিসার ডা. রেহেনেওয়াজ জানান, যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) জেনোম সেন্টারে ২১৯ টি নমুনা পরীক্ষায় ৬৭ জনের করোনা শনাক্ত হয়। এরমধ্যে সদর উপজেলায় ২৬ জন, কেশবপুর উপজেলায় ৪ জন, বাঘারপাড়া উপজেলায় ২ জন, ঝিকরগাছা উপজেলায় ৭ জন, অভয়নগর উপজেলায় ৮ জন, মণিরামপুর উপজেলায় ২ জন, শার্শা উপজেলায় ৭ জন ও চৌগাছা উপজেলায় ৯ জন রয়েছে। ডা. রেহেনেওয়াজ আরও জানান, শনিবার ৭ হাজার ৩৪২ জন নারী পরুষ টিকা নিয়েছেন। এরমধ্যে এরমধ্যে চিনের সিনোফার্মের ৪ হাজার ৬৭২ জন ও জাপানের এস্টাজেনেকা টিকা নিয়েছেন ২ হাজার ৬৭০ জন।

যশোরের সিভিল সার্জন ডা. শেখ আবু শাহীন জানান, ১৪ আগস্ট পর্যন্ত যশোর জেলায় ২০ হাজার ৩৮৭ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। সুস্থ হয়েছেন ১৮ হাজার ৮৩২ জন। যশোরের বিভিন্ন হাসপাতাল ও বাড়িতে মারা গেছেন ৪২০ জন। এছাড়া ঢাকায় ৬ জন খুলনায় ৭ জন ও সাতক্ষীরার হাসপাতালে ১ জনের মৃত্যু হয়েছে। সব মিলিয়ে জেলায় করোনায় মারা গেছেন ৪৩৪ জন।

সিভিল সার্জন আরও জানান, বর্তমানে যশোর জেলায় করোনায় শনাক্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা কমেছে। তবে প্রতিদিন টিকা গ্রহণকারীর সংখ্যা বাড়ছে। প্রথম দিকে টিকা গ্রহণে মানুষের উদাসিনতা ছিলো। কিন্তু এখন টিকা নেয়ার জন্য মানুষ দীর্ঘ সময় লাইনে অপেক্ষা করছে।