ই-পেপার ফটোগ্যালারি আর্কাইভ শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর , ২০২১ ● ২ আশ্বিন ১৪২৮

কৃষি সবচেয়ে সম্মানজনক পেশা: কৃষিমন্ত্রী

Published : Sunday 12-September-2021 22:42:08 pm
এখন সময়: শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর , ২০২১ ১৩:৪০:২৪ pm

স্পন্দন ডেস্ক: কৃষি মন্ত্রী ড. মোঃ আব্দুর রাজ্জাক এমপি বলেছেন, সরকার কৃষিতে বিপ্লব ঘটিছে। যশোর খুলনা অঞ্চলের কৃষকরা এ বিপ্লবের অগ্রসেনানীন। তারা অসময়ের তরমুজ, শিমসহ বিভিন্ন সবজি চাষ করে সফলতা দেখিছেন।  কৃষকরা দেশের সম্পদ, কৃষি সবচেয়ে সম্মানজনক পেশা। তারা সমাজের মর্যাদা সম্পন্ন মানুষ। এ দেশের ৭০ শতাংশ মানুষ কৃষি পেশার উপর নির্ভরশীল। জাতীয় অর্থনীতি প্রবৃদ্ধিতে কৃষির ভূমিকা অপরিসীম ।

তিনি গতকাল খুলনার ডুমুরিয়া ও সাতক্ষীরার কলোরোয়ায় কৃষকদের মাঠ পরিদর্শন এবং যশোর সার্কিট হাউসে কৃষি কর্মকর্তাদের সাথে মতবিনিময়কালে এ কথা বলেন।

রোববার রাতে যশোর সার্কিট হাউজে বিভিাগীয় কৃষিকর্মকর্তাদের মতবিনিময় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন কৃষি মন্ত্রী কৃষিবিদ ড.আব্দুর রাজ্জাক।   বিশেষ অতিথি ছিলেন স্থানীয় সরকার,পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রাণালয়ের প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য এমপি, কৃষি মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব কৃষিবিদ মেসবাহুল ইসলাম। এসময় বক্তব রাখেন বিএডিসি চেয়ারম্যান কৃষিবিদ ড. অমিতাভ সরকার, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক কৃষিবিদ আসাদুল্লাহ, কৃষি গবেষণা কাউন্সিলর নির্বাহী অফিসার ড. শেখ মোহাম্মদ বখতিয়ার, কৃষি মন্ত্রালয়ের অতিরিক্ত সচিব ওয়াহিদা আক্তার,এসআরডিআই মহাপরিচালক বিধান কুমার ভান্ডার, ব্রি মহাপরিচালক ড. মো শাহজাহান কবির, যশোরের জেলা প্রশাসক তমিজুল ইসলাম খান। স্বাগত বক্তব্য রাখেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের যশোর অঞ্চলের অতিরিক্ত উপপরিচালক জাহিদুল ইসলাম। অনুষ্ঠানটি সঞ্চলনা করেন জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ পরিচালক বাদল চন্দ্র বিশ্বাস।

ডুমুরিয়া ও চুকনগর প্রতিনিধি জানান , উপজেলার বরাতিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর খামারবাড়ি ঢাকার মহাব্যবস্থাপক মো. আসাদুল্লাহ’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় কৃষিমন্ত্রী আরো বলেন, বঙ্গবন্ধু বলতেন যে জমিতে বীজ ফেললে গাছ হয় সেই দেশের মানুষ না খেয়ে থাকবে কেন? সে দেশের মানুষ কষ্ট পাবে কেন? অভুক্ত থাকবে কেন? তার বাস্তব উদাহরণ দেখলাম ডুমুরিয়ায় এসে। অসময়ে তরমুজ আর ঘেরের আইলে সিম চাষ দেখে আমার প্রাণটা ভরে গেছে।

সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন সংসদ সদস্য নারায়ন চন্দ্র চন্দ ও কৃষি মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মো. মেসবাহুল ইসলাম। এ সময়ে কৃষি মন্ত্রণালয়ের শীর্ষ পর্যায়ের কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ মো. মোছাদ্দেক হোসেন।     

এর আগে সকালে প্রধান অতিথি  খর্ণিয়া ইউনিয়ন বিভিন্ন সবজি ক্ষেত পরিদর্শন করেন। অনুষ্ঠান শেষে চুকনগর গণহত্যা  বধ্যভূমিতে শহীদদের স্মরণে গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন। শেষে  আটলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের উদ্যোগে বৃক্ষ রোপন কর্মসূচি অংশ হিসেবে  ইউপি চেয়ারম্যান প্রতাপ রায়ের আহব্বানে বধ্যভূমি চত্ত্বর  তালবৃক্ষের বীজ রোপণের শুভ উদ্বোধন করেন মন্ত্রী।

কলারোয়া প্রতিনিধি জানান,  বেলা ৩ টার দিকে উপজেলার কামরালী ও বাটরা গ্রামে টমেটো মাঠ পরিদর্শন শেষে কৃষকদের সাথে এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক কৃষিবিদ নূরুল ইসলাম। অন্যদের মধ্যে অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের মহা পরিচালক কৃষিবিদ আব্দুল্যাহ , কৃষি মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মেজবাহুল ইসলাম, সাতক্ষীরা সংসদীয় আসনের সংসদ সদস্য মীর মোস্তাক আহম্মেদ রবি, তালা- কলারোয়া সংসদ সদস্য এ্যাডঃ মুস্তফা লুৎফুল্লাহ, জেলা আ’লীগ সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব নজরুল ইসলাম, সাবেক সংসদ সদস্য ইন্জিনিয়র মুজিবুর রহমান, সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হুমায়ুন কবির, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম লাল্টু, উপজেলা আ’লীগ সভাপতি ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ফিরোজ আহম্মেদ স্বপন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) জুবায়ের হোসেন চৌধুরী, সহকারী কমিশনার(ভূমি) আল আমীন, কৃষি অফিসার রফিকুল ইসলাম, আ’লীগ নেতা পৌর মেয়র মাস্টার মনিরুজ্জামান বুলবুল, যুগিখালী ইউপি চেয়ারম্যান রবিউল হাসান, আ’লীগ নেতা আমজাদ হোসেন, আদর্শ কৃষক আফছার সানা, প্রান্তিক কৃষক মন্জুরুল হকসহ বিভিন্ন দপ্তরের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, আ’লীগ নেতৃবৃন্দ, জনপ্রতিনিধি, সাংবাদিকবৃন্দ ও প্রান্তিক কৃষক- কৃষাণীগণ। সব শেষে মাননীয় কৃষি মন্ত্রী ড. মোঃ আব্দুর রাজ্জাক উপজেলা পরিষদে অবস্থানের পর যশোর সার্কেট হাউজের উদ্দেশ্যে কলারোয়া ত্যাগ করেন।